ঢাকা,  বুধবার,  জানুয়ারি ২৩, ২০১৯ | ১০ মাঘ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
For problem seeing Bangla click here
সদ্য খবর
English

রাশিয়া চালু করতে যাচ্ছে বিশ্বের প্রথম ভাসমান পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র

ইবি ডেস্ক

বিশ্বের প্রথম ভাসমান পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র চালু করতে যাচ্ছে রাশিয়া। রাশিয়ার মুরমান্সকে অবস্থিত বিশ্বের প্রথম ভাসমান পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র- একাডেমিক লামানোসভের প্রথম ইউনিটের পরীক্ষামূলক উৎপাদন শরু হয়েছে। বিদ্যুৎকেন্দ্রটি নির্মাণ করেছে রুশ রাষ্ট্রীয় পারমাণবিক শক্তি কর্পোরেশন রসাটম।

বিদ্যুৎকেন্দ্রর ধারাবাহিক পরীক্ষা-নিরীক্ষা চলছে। ২০১৯ সালের মার্চ মাস পর্যন্ত এ পরীক্ষা চলবে। পরে রাশিয়ার সর্ব উত্তর-পূর্ব অঞ্চল চুকোতকার পেভেক বন্দরে বিদ্যুৎকেন্দ্র নিয়ে যাওয়ার পর গ্রীডে যুক্ত করা হবে।

রসাটমের মহাপরিচালক আলেক্সি লিখাচভ জানান, নির্ধারিত সময় মোতাবেক কাজ এগিয়ে চলছে। আগামী শরতেই পরিকল্পনা অনুযায়ী একাডেমিক লামানোসভকে পেভেকে নিয়ে যাওয়া সম্ভব হবে। আমাদের এই বিদ্যুৎকেন্দ্র শুধু রাশিয়ার গ্রীড-বহির্ভূত উত্তর মেরু অঞ্চলই নয়, বিশ্বের বিভিন্ন দেশের জন্য প্রয়োজনীয় ও উপযোগী বলে বিবেচিত হবে। ¶ুদ্র পারমাণবিক বিয়্যাক্টর ব্যবহারে আগ্রহী সম্ভাব্য অংশীদারদের জন্য একটি রেফারেন্স প্রযুক্তি উপস্থাপন করছি। দৃঢ় বিশ্বাস, এ জাতীয় কেন্দ্র ক্রমবর্ধমান চাহিদা বিশ্বের পরমাণু প্রযুক্তির বাজারে রাশিয়ার শীর্ষ অবস্থানকে আরও সুদৃঢ় করবে।

ভাসমান পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র মূলত একটি চলনক্ষম রিয়্যাক্টরসমৃদ্ধ স্থাপনা। যে সকল দূরবর্তী স্থান বিদ্যুৎ বিতরণ নেটওয়ার্কের বাইরে অবস্থিত বা যেখানে নেটওয়ার্ক স¤প্রসারণ দুঃসাধ্য, সে সকল স্থানের জন্য এটি অত্যন্ত উপযোগী। এ জাতীয় বিদ্যুৎকেন্দ্রগুলো শুধু অবিরাম বিদ্যুৎ সরবরাহই নিশ্চিত করে না, একই সঙ্গে  পানির লবনাক্ততা দূরীকরণেও সক্ষম।

একাডেমিক লামানোসভে প্রতিটি ৩৫ মেগা ওয়াট ¶মতার ২টি পারমাণবিক বিদ্যুৎ রিয়্যাক্টর রয়েছে। কেন্দ্রর আয়ুষ্কাল ৪০ বছর, তবে তা ৫০ বছর পর্যন্ত চালানো যাবে।

রাশিয়া বর্তমানে দ্বিতীয় প্রজন্মের ভাসমান পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নিয়ে কাজ করছে। এগুলোতে যে ২টি রিয়্যাক্টর থাকবে তার প্রতিটির উৎপাদন ¶মতা হবে ৫০ মেগাওয়াট, আকারও হবে অপেক্ষাকৃত ছোট।

রাশিয়া বর্তমানে বাংলাদেশের রূপপুরে পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের বাস্তবায়নে কাজ করছে। রুপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পে প্রতিটি ১,২০০ মেগাওয়াট ¶মতার দু’টি বিদ্যুৎ ইউনিট থাকবে। প্রকল্পটিতে বিশ্বের সর্বাধুনিক এবং সর্বাধিক নিরাপদ ৩+ প্রজন্মের ভিভিইআর-১২০০ রিয়্যাক্টর স্থাপন করা হবে।

বিশ্বের প্রথম ভাসমান পরমাণু বিদ্যুৎকেন্দ্র

বিশ্বের প্রথম ভাসমান পরমাণু বিদ্যুৎকেন্দ্র

এখানে মন্তব্য করুন

আপনার ইমেইল জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না

*

You can use these HTML tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <strike> <strong>